জবা ফুলের তেলেই চুল হবে ঘন ও লম্বা

লম্বা ও ঘন চুল সবাই পেতে চায়। এজন্য যদিও বেশি কিছু করার প্রয়োজন নেই। নিয়মিত চুলের যত্ন নিলেই আপনি পাবেন লম্বা ও ঘন চুল। আপনি যদি ঘরে বসেই চুল লম্বা ও ঘন করতে চান তাহলে ব্যবহার করতে পারেন জবা ফুলের তেল।

যুগ যুগ ধরে চুল পড়া কমাতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে জবা ফুল। এটি সহজলভ্য এবং বিস্ময়কর গুণসমৃদ্ধ। জবা শুধু একটি ফুলই নয়, এতে আছে হাজারো ওষুধিগুণ। বিশেষ করে চুল পড়া বন্ধ করে এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে জবা ফুল।

জার্নাল অব এথনোফার্মাকোলজির এক গবেষণা অনুসারে, জবা ফুল ব্যবহারে চুলের ফলিকল বাড়ায় টাক সমস্যার সমাধান হতে পারে। জবা ফুলে থাকা অ্যামিনো অ্যাসিড চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এই অ্যামিনো অ্যাসিডগুলো কেরাটিন নামে একটি স্ট্রাকচারাল প্রোটিন তৈরি করে।

কেরাটিন চুলের গোড়া মজবুত রাখে। সোসঙ্গে চুলে পর্যাপ্ত কেরাটিন থাকলে ভেঙে পড়া থেকেও রক্ষা করে। জবা ফুল এবং পাতায় প্রচুর পরিমাণে মিউসিল থাকে, যা প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে।

তাই চুলের বৃদ্ধি ও বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে ব্যবহার করুন জবার তেল। এটি আপনি ঘরেই তৈরি করে নিতে পারবেন কোনো ঝামেলা ছাড়াই। জেনে নিন তৈরি করবেন কীভাবে-

এজন্য প্রয়োজন হবে ১ কাপ নারকেল তেল, ৮টি জবা ফুল ও ৮টি জবা পাতা। প্রথম জবা ফুল ও পাতাগুলো ভালো করে ধুয়ে মিহি করে বেটে নিন। এবার এক কাপ নারকেল তেল গরম করে এতে পেস্ট যুক্ত করুন।

মিশ্রণটি কয়েক মিনিট চুলায় হালকা আঁচে গরম করুন। তারপরে ঠান্ডা করার জন্য এটি একপাশে রেখে দিন। তৈরি হয়ে গেলে জবা ফুলের তেল বা হিবিস্কাস অয়েল। এটি ব্যবহারের জন্য এখন প্রস্তুত!

এটি দিয়ে আপনার মাথার ত্বকে প্রায় ১০ মিনিটের জন্য ম্যাসাজ করুন এবং এটি প্রায় আধা ঘণ্টার জন্য রেখে দিন। হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল এবং মাথার ত্বক ধুয়ে ফেলুন।

নারকেল তেলের সঙ্গে অভি অয়েল ও আমন্ড অয়েল মিশিয়েও জবার তেল তৈরি করতে পারেন। এতে আরও উপকারিতা পাবেন। জবা ফুলের তেল তৈরির পর এটি কাচের পাত্রে শীতল এবং শুকনো স্থানে সংরক্ষণ করুন।

এই তেল সপ্তাহে অন্তত একবার চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ব্যবহার করুন। তেল ব্যবহারের পর একটি গরম তোয়ালে দিয়ে মাথা ঢেকে রাখুন। এর ফলে আপনার মাথার ত্বকে বন্ধ ছিদ্রগুলো খুলে যাবে এবং তেলের পুরো পুষ্টি চুল শোষণ করবে।

সূত্র: হেলথ শটস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *